শনিবার, ১০ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:০৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
জনগণকে সাথে নিয়ে শিক্ষা, চিকিৎসা সহ এলাকার সার্বিক উন্নয়নে কাজ করে যেতে চান আব্দুল হালিম চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ নির্বাচনে নবনির্বাচিত সদস্য ইঞ্জিনিয়ার ইসলাম আহমদের বিজয় উল্লাস কর্ণফুলীতে গফরগাঁওয়ে বিএনপি-জামাত কোন ধরনের ষড়যন্ত্র যেন না করতে পারে সব সময় আমরা মাঠে আছি এবং প্রস্তুত। চট্টগ্রাম কর্ণফুলীতে আগুনে পুড়লো বাড়ি-ঘর, চার লাখ টাকার ক্ষতি গফরগাঁওয়ে মডেল মসজিদে এলাকার সকল মুসল্লীদেরকে নিয়ে জুমার নামাজ পড়লেন ফাহমী গোলন্দাজ বাবেল এমপি ; মহোদয়। নড়াইলের মহাজন-বড়দিয়া ঘাট এক বছর আগে ফেরি এলেও চালু হয়নি বিএনপি জামাতের নৈরাজ্য ও পুলিশের উপর হামলার প্রতিবাদে যুবলীগ নেতা মিজানুর রহমানের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী মেজবান ও বীর চট্টলা রেস্টুরেন্ট এ অসাস্থ্যকর খাদ্য তৈরি ও পার্সেলের অভিযোগ। নড়াইল জেলা পুলিশের আয়োজনে কল্যাণ সভায় ও সাপ্তাহিক মাস্টার প্যারেড গফরগাঁও, পৌরসভা, পরিদর্শন করেন বিভাগীয় কমিশনার, ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসক।
নোটিশ :
বাংলাদেশের সময় পত্রিকায় ২৪ ঘন্টা লাইভ খবর পড়ুন।

করোনায় থমকে গেছে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া

রিপোর্টার / ১৮২ ভিউ
আপডেট সময় : শনিবার, ২০ জুন, ২০২০, ৫:২১ অপরাহ্ন

মো. আব্দুল্লাহ আল হাদী, (কক্সবাজার জেলা) প্রতিনিধি :-

বিশ্বের অন্যতম ঘনবসতিপূর্ণ দেশ অনেকটা এককভাবেই মোকাবিলা করছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় শরণার্থী সঙ্কট। মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নির্যাতনসহ নানা কারণে ১৯৭৮ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত পালিয়ে ১১ লাখের বেশি রোহিঙ্গার অবস্থান এখন বাংলাদেশে। নানা জটিলতায় তাদের ফেরত পাঠানো যাচ্ছে না, তার সঙ্গে যুক্ত হয়েছে করোনা সংকট। প্রশাসনের দুই শীর্ষ কর্মকর্তা স্বীকার করলেন, করোনা পরিস্থিতি রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়াকে বাধাগ্রস্ত করেছে।
মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নির্যাতনের শিকার হয়ে বারবার সীমান্ত পাড়ি দিয়ে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিচ্ছে রোহিঙ্গারা। ১৯৭৮ সাল থেকে শুরু হওয়া এ সঙ্কট অব্যাহত আছে এখনো। তবে, ২০১৭ সালের ২৫ আগস্টের পর থেকে ভয়াবহ নির্যাতনের মুখে কক্সবাজারের উখিয়া ও টেকনাফে আশ্রয় নেয় ৮ লাখের বেশি রোহিঙ্গা।
নতুন পুরাতন মিলিয়ে দেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গার সংখ্যা ১১ লাখ ছাড়িয়েছে। নানা সময় লোক দেখানো কিছু কার্যক্রম ছাড়া মোটেও এগোয়নি প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া। দীর্ঘ সময়ের শরণার্থী জীবন থেকে মুক্তি নিয়ে স্বদেশে ফেরার আকুলতা রোহিঙ্গাদের।
রোহিঙ্গারা জানান, ৫ বছর ধরে…, সবশেষ দুই মাস আগেও নির্যাতনের শিকার হয়ে অনেকে এসেছে। সেখানে অনেক সম্পত্তি রেখে এসেছে, দেশের জন্য তাদের মন কাঁদে।
রোহিঙ্গাদের কারণে নানা সমস্যায় জর্জরিত স্থানীয়রা,তারা জানান ভূমি চাষাবাদ করে খেতে হয় আমাদের, কিন্তু রোহিঙ্গা আসার পর থেকে আমাদের চাষাবাদযোগ্য স্থানটুকু তারা বসবাস যোগ্য স্থান করে নেয় তখন আমাদের চাষাবাদ করে খাওয়ার অনুপযোগী হয়ে পড়ে।

তাই করোনা মহামারিকে পুঁজি করে প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়াকে দীর্ঘায়িত না করতে মিয়ানমারকে বিশ্ববাসীর চাপ অব্যাহত রাখার দাবি জানিয়েছেন রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন সংগ্রাম পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা মাহামুদুল হক চৌধুরী।
তিনি বলেন, সরকারের কাছে এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে অনুরোধ করবো; করোনার এই সময়ে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া যতদূর সম্ভব এগিয়ে নেয়ার।
আর প্রশাসনের দুই শীর্ষ কর্মকর্তা স্বীকার করলেন, করোনা পরিস্থিতি রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়াকে বাধাগ্রস্ত করেছে।
কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন বলেন, করোনা পরিস্থিতি উন্নতি হলে আশা করি প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়াসহ অন্যান্য বিষয়ে কাজের গতি পাবে।
এদিকে শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার মো. মাহবুব আলম তালুকদার বলেন, প্রত্যাবাসন শুরু করতে আমরা প্রস্তুত আছি। সরকার যেকোনো সময় সিদ্ধান্ত নিলে আমরা এ কার্যক্রম শুরু করবো।
রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে ২০১৮ সালের ১৫ জানুয়ারি বাংলাদেশ-মিয়ানমার যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপ গঠন করা হয়। এরপর কয়েক দফা বৈঠকের পরও এখন পর্যন্ত রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে কোন কার্যকর অগ্রগতি হয়নি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ

প্রধান কার্যালয়ঃ শ্রীপুর নয়নপুর, গাজীপুর।

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ গফরগাঁও রেলস্টেশন সংলগ্ন।

ই-মেইলঃ Bangladeshersomoy24@gmail.com

মোবাইলঃ

01716-404205

01911-661074

Develop By Ruhul Amin