শনিবার, ১০ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:৩৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
জনগণকে সাথে নিয়ে শিক্ষা, চিকিৎসা সহ এলাকার সার্বিক উন্নয়নে কাজ করে যেতে চান আব্দুল হালিম চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ নির্বাচনে নবনির্বাচিত সদস্য ইঞ্জিনিয়ার ইসলাম আহমদের বিজয় উল্লাস কর্ণফুলীতে গফরগাঁওয়ে বিএনপি-জামাত কোন ধরনের ষড়যন্ত্র যেন না করতে পারে সব সময় আমরা মাঠে আছি এবং প্রস্তুত। চট্টগ্রাম কর্ণফুলীতে আগুনে পুড়লো বাড়ি-ঘর, চার লাখ টাকার ক্ষতি গফরগাঁওয়ে মডেল মসজিদে এলাকার সকল মুসল্লীদেরকে নিয়ে জুমার নামাজ পড়লেন ফাহমী গোলন্দাজ বাবেল এমপি ; মহোদয়। নড়াইলের মহাজন-বড়দিয়া ঘাট এক বছর আগে ফেরি এলেও চালু হয়নি বিএনপি জামাতের নৈরাজ্য ও পুলিশের উপর হামলার প্রতিবাদে যুবলীগ নেতা মিজানুর রহমানের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী মেজবান ও বীর চট্টলা রেস্টুরেন্ট এ অসাস্থ্যকর খাদ্য তৈরি ও পার্সেলের অভিযোগ। নড়াইল জেলা পুলিশের আয়োজনে কল্যাণ সভায় ও সাপ্তাহিক মাস্টার প্যারেড গফরগাঁও, পৌরসভা, পরিদর্শন করেন বিভাগীয় কমিশনার, ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসক।
নোটিশ :
বাংলাদেশের সময় পত্রিকায় ২৪ ঘন্টা লাইভ খবর পড়ুন।

ময়মনসিংহে ভালুকায় মাল্টা ও লেবু চাষে কৃষিতে নীরব বিপ্লব

রিপোর্টার / ২২৯ ভিউ
আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ১৪ জুলাই, ২০২০, ৩:২২ অপরাহ্ন

সাইফুল ইসলাম স্টাফ রিপোর্টার —
ময়মনসিংহ জেলার ভালুকা উপজেলার কাচিনা ইউনিয়নে কাদিগড় জাতীয় উদ্যান সবুজেঘেরা অভয়ারণ্য। সেই অভয়ারণ্যে লেবু ও মাল্টা চাষে নীরব বিপ্লব ঘটিয়েছেন ‘প্রয়াস এগ্রো’ নামের কৃষি খামার। এখানে শুধু লেবু আর মাল্টাই নয় সাথী ফসল হিসেবে চাষ হচ্ছে পেঁপে, পেয়ারা, লাউ, আদা’সহ নানান কৃষি সব্জি।
কৃষি নির্ভর ও সবুজেঘেরা এলাকার শিক্ষিত ছেলে মাজহারুল ইসলাম শামীম পেশায় একজন ওয়েব ইঞ্জিনিয়ার। পেশাগত দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি বন্ধুদের নিয়ে নিজ গ্রাম ভালুকা উপজেলার কাদিগড়ে ১৮ সালে ৮ একর জমিতে মাল্টা ও লেবু চাষ শুরু করেন। বর্তমানে তাদের ১৫ একর জমিতে ‘প্রয়াস এগ্রো’,’বারাকাহ এগ্রো’, ও ‘মেম্বার এগ্রো অ্যান্ড নার্সারী’ নামে ৩টি মাল্টা ও লেবুর বাগান রয়েছে।
১৫ একর জমিতে বারি -১ জাতের মাল্টা ও ১০ একর জমিতে সিডলেস জাতের বিচিবিহীন লেবু চাষ করছেন। শামীম জানান দু’হাজার উনিশ সালে ১৭ শ মাল্টা গাছ থেকে আড়াই টন, দু’হাজার বিশ সালে ২৫শ মাল্টা গাছ থেকে ১৮-২০ টন মাল্টা উত্তোলন করেছেন।

এছাড়া উনিশ সালে সারে পাঁচ হাজার গাছের লেবু বিক্রি করেছেন ১২ লাখ টাকা। ২০২০ সালে এ পর্যন্ত তারা ৯হাজার গাছ থেকে ২০ লাখ টাকার লেবু বিক্রি করেছেন। মাল্টা ও লেবু চাষের পাশাপাশি মাল্টা ও লেবুর চারা বিক্রি করে টাকা আয় করছেন এই কৃষি খামারিরা ।
সেপ্টেম্বর মাসে স্থানীয় বাজার ও ঢাকায় মাল্টা বিক্রি করা হয়। এছাড়া সিডলেস লেবু সারা বছর বিক্রি হয়। লেবু বিচিহীন, গন্ধযুক্ত, সুস্বাদু হওয়ায় চাহিদা প্রচুর। বাগান বৃদ্ধি পাচ্ছে প্রত্যেক বছর।

গাছে গাছে ঝুলছে থোকা থোকা সিডলেস লেবু ও বারি-১ জাতের মাল্টা। চারদিকে সবুজের সমারোহ। কাদিগড় গ্রাম যেন এক অপরূপ সৌন্দর্যের লীলাভূমিতে রূপ নিয়েছে।
এ অঞ্চলের মাটি মাল্টা ও লেবু চাষের জন্য বেশ উপযোগী। ইঞ্জিনিয়ার শামীম, লোকমান হোসেন, জালাল উদ্দিন, সুরুজ মেম্বার ও তার বন্ধুদের বাগান দেখে অনেকেই মাল্টা ও লেবু চাষে উৎসাহী হচ্ছেন।
সরেজমিন ঘোরে দেখা যায় বাগানীরা লেবু তোলায় ব্যাস্ত। মাল্টা বাগান পরিচর্যায় এলাকার বেকার নারী পুরুষকে কাজে লাগিয়ে তদারকি করছেন।
কর্মসংস্থান ব্যাংকের সাবেক জিএম জালাল উদ্দিন বলেন- অবসর জীবনে ব্যাসত থাকা ও অর্থনৈতিক স্বাবলম্বী হতে প্রথমে মৎস, মুরগী ও গরুর খামার করেন। তারপর ইউটিউবে মাল্টা চাষের সফলতা দেখে উদ্ভুদ্ব হয়ে ৭জন মিলে বাগান গড়ে তোলেন। মাল্টা যেহেতু নিদৃষ্ট সময় পরে পলন আসে তাই দ্রুত ফলনযোগ্য অর্থকরী ফসল লেবু চাষ করেন। তিনি বলেন- লেবু বিক্রির টাকায় তাদের মাল্টা বাগানের খরচ হয়েও নিজেরা নিতে পারছেন।
এই বাগানের আরেক কর্ণধার বেসরকারি চাকুরে লোকমান হোসেন বলেন- মুলত কৃষির প্রতি ঝুঁক লেবু ও মাল্টা চাষে আগ্রহী হয়েছেন। বারোমাসি লেবু তাদের বাগান থেকে প্রতিদিন পাইকাররা এসে কিনে নেয়। আর মাল্টা গতবছর থেকে উৎপাদন শুরু হলে এবার বাণিজ্যিক ভাবে বাজার জাত করতে তারা প্রস্তুতি নিচ্ছেন।
বাগানের আরেক অংশিদার জানান, এবার মাল্টার গাচ ফলে পরিপূর্ণ। গাছের পাতায় পাতা মাল্টা। এ বছর তাদের বিক্রি টার্গেট ৪০লক্ষ টাকা। যা আগামী বছর দ্বিগুণ হবে বলে আশাবাদী।
মাল্টা চাষি সুরুজ মেম্বার বলেন, আমরা নতুন করে আরও ৩টি বাগান করেছি। সরকারি সহায়তার কথা জানতে চাইলে তিনি বলেন তারা নিজস্ব অর্থায়নে ৬০লক্ষ টাকা এই বাগানে খাটিয়েছেন। সরকারি বা বেসরকারি কোন ঋন তারা এখনো গ্রহন করেননি।
কাচিনা ইউনিয়নের কৃষি উপসহকারি আলআমিন জানান, লেবু এবং মাল্টা অর্থকরী ও কম খরচে বেশী উৎপাদনশীল ফসল। কাদিগড়ের এই বাগানটি ভালুকায় সবচেয়ে বৃহৎ বাগান। আমরা সার্বক্ষণিক পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছি। চলতি বছর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর থেকে এক একরের একটি মাল্টা বাগান দেয়া হয়েছে।
ভালুকা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ফোন ধরেননি


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ

প্রধান কার্যালয়ঃ শ্রীপুর নয়নপুর, গাজীপুর।

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ গফরগাঁও রেলস্টেশন সংলগ্ন।

ই-মেইলঃ Bangladeshersomoy24@gmail.com

মোবাইলঃ

01716-404205

01911-661074

Develop By Ruhul Amin